স্বাস্থ্য

জিভে জল আনবে,বরইয়ের আচার

বার্তা সম্পাদক : মেহেদী হাসান

শেয়ার করুনঃ

বরই, বড়ই বা কুল আমাদের দেশে খুবই জনপ্রিয় একটা ফল। যদিও এর আদি নিবাস আফ্রিকা, তবু বাংলাদেশে তো বটেই এটি পুরো দক্ষিণ এশিয়ায় বহুল পরিচিত একটি ফল। বরই শুকিয়ে দীর্ঘদিন সংরক্ষণ করা যায়। শুকনো বরই দিয়ে চমত্‍কার চাটনি ও আচার তৈরি করা যায়। কাঁচা বরইয়ের মতো শুকনো বরইয়েরও রয়েছে ব্যাপক পুষ্টিগুণ। শুকনো বরই দিয়ে তৈরি করা যায় মজার মজার আচার যা সংরক্ষণ করা যায় সারা বছর। রইলো শুকনো বরই দিয়ে ঝাল-মিষ্টি আচার তৈরির রেসিপি। এটা তৈরি করা যেমন সহজ, খেতে তেমনই মজা!

উপকরণ :
শুকনো বরই- ১ কেজি, চিনি- ৩৫০ গ্রাম, লবণ- স্বাদমতো, সরিষার তেল- ৫০০ মিলিলিটার, আদা বাটা- ১ টেবিল চামচ,রসুন কুচি- ২ টেবিল চামচ, শুকনা মরিচ- ৮টি, মরিচ গুঁড়া- ১ টেবিল চামচ, পাঁচফোড়ন গুঁড়া- ১ টেবিল চামচ, জিরা ভেজে গুঁড়া করা- ১ টেবিল চামচ, ভিনেগার- ২৫০ মিলিলিটার

প্রস্তুত প্রণালী :
-শুকনো বরইগুলো আচার বানানোর আগের রাতে বোঁটা ফেলে দিয়ে ভালো করে ধুয়ে পানিতে ভিজিয়ে রাখুন সারারাত।
-পরদিন বরইগুলো থেকে পানি ভালোভাবে ঝরিয়ে ফেলুন।
-শুকনো মরিচ ছাড়া বাকি সব মশলা একটি পাত্রে নিয়ে তাতে ভিনেগারটুকু ঢেলে ভালো করে মিশিয়ে নিন।
-একটি পাত্রে তেল নিয়ে চুলোয় বসান। তেল গরম হয়ে এলে এতে সবটুকু মশলা দিয়ে দিন।
-এরপর এতে চিনি ও লবণ দিয়ে ভালো করে কষান।
-কিছুক্ষণ পর এতে শুকনো মরিচ ও বরইগুলো দিয়ে জ্বাল দিতে থাকুন।
-থকথকে হয়ে এলে নামিয়ে ফেলুন।
-আচার ঠাণ্ডা হলে বয়ামে তুলে ফেলুন।
এই আচার বয়ামে সারা বছর সংরক্ষণ করে খাওয়া যাবে। চিনির পরিবর্তে গুড় দিয়েও এই আচার করা যায়। সেক্ষেত্রে গুড় আগেই গলিয়ে নেবেন।

আওয়ার বাংলাদেশ নিউস ২৪


শেয়ার করুনঃ
Show More

সম্পর্কিত খবর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button