সবসারা দেশ

আপনি কি ফেসবুকে আসক্ত বুঝবেন যেভাবে

বার্তা সম্পাদক : মেহেদী হাসান

শেয়ার করুনঃ

কী বললে, ফেসবুক বন্ধ করব? মাথা খারাপ! ফেসবুক ছাড়া আমি, এতো ভাবতেই পারি না।এ কথা সারা বিশ্বের কোটি কোটি তরুণ-তরুণীর। এর কারণ তাদের ফেসবুক আসক্তি। ফেসবুক তাদের গ্রাস করে ফেলেছে। অহরাত্রি মেতে থাকে এরা ফেসবুকে। হাজার হাজার পেজ, হাজার হাজার বন্ধু সামলানো তো আর চাট্টিখানি কথা নয়! নিত্য নতুন বন্ধু জুটছে, কত দেশের কত মানুষের সঙ্গে চ্যাট করা যাচ্ছে, কত কিছু জানা যাচ্ছে, নিঃসঙ্গ সময়টা কত সুন্দর পার হচ্ছে- এরকম বহু কথামালাই ফেসবুক নিয়ে বলা যায়।

একাধিক গবেষণায় এরই মধ্যে নিশ্চিত হওয়া গেছে যে ফেসবুকের আসক্তি অনেকটা নেশাদ্রব্যে আসক্তির মতোই। যুক্তরাষ্ট্রের ক্যালিফোর্নিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটির গবেষকেরা ফেসবুকের আসক্তিকে কোকেইনে আসক্তির সঙ্গেও তুলনা করেছেন। নরওয়ের ইউনিভার্সিটি অব বারগেনের গবেষকেরা ফেসবুকে আসক্তি পরিমাপের একটি পদ্ধতি বের করেছেন, যাকে বলা হয় বারগেন ফেসবুক অ্যাডিকশন স্কেল (বিএফএএস)। এ পদ্ধতিতে আপনাকে ৬টি অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে নম্বর দিতে হবে। নম্বর দেওয়ার ৫টি মাত্রা আছে—১. খুব কম, ২. কম, ৩. মাঝারি, ৪. বেশি, ৫. খুব বেশি। যদি অন্তত ৪টি প্রশ্নের উত্তর ‘বেশি’ বা ‘খুব বেশি’ হয়, তাহলে বুঝতে হবে আপনি ফেসবুক আসক্ত।

১. ফেসবুক নিয়ে ভেবে কিংবা কীভাবে ফেসবুক ব্যবহার করবেন সে–সংক্রান্ত পরিকল্পনা করে আপনি সময় ব্যয় করেন।

২. বেশি বেশি ফেসবুক ব্যবহার করার জন্য আপনি একধরনের তাড়না অনুভব করেন।

৩. ব্যক্তিগত সমস্যা ভুলে থাকতে ফেসবুকে সময় দেন।

৪. একাধিকবার ফেসবুকে কম সময় ব্যয় করার সিদ্ধান্ত নিয়েও আপনি ব্যর্থ হয়েছেন।

৪. একাধিকবার ফেসবুকে কম সময় ব্যয় করার সিদ্ধান্ত নিয়েও আপনি ব্যর্থ হয়েছেন।

আওয়ার বাংলাদেশ নিউস ২৪


শেয়ার করুনঃ
Show More

সম্পর্কিত খবর

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

Back to top button